দেবযানী কথাসব

ভারত এই মুহূর্তে ভাইরাস মোকাবিলায় যুগান্তকারী সাকসেসের পথে। সারা দুনিয়া থম মেরে দেখছে, ভেবে ভেবে দম পায়না “শালা হচ্ছে টা কি ? এতো গুরু নিকলালো!”

উইছ হান্টিং! আসলে ইন্ডিয়া যা আজ ভাবে জার্মানি একশো বছর আগে ভেবেছে,যায় হোক ওল্ড মডেল হলেও বিদেশি মাল পেথ্থম পছন্দ!

গত ১৪ই এপ্রিল আ্যরেস্টেড হয়েছেন আনন্দ তেলতুমডে ও গৌতম নাভালকর! প্রফেসর, রাইটার সোস্যাল আ্যকটিভিস্ট।সুপ্রিম কোর্ট এনাদের বেইল পিটিশন খারিজ করে দিয়েছে। (আলবাত দেবে, দেশের খতরা বলে কথা )!

Photo: The New York Times

গৌরী,কালবুরগী,লাভারকে শুরুতেই “আব গোলি খা” করে দিয়েছে এই সরকার।

ভিমা কোরেগাও কেসে ফাঁসিয়ে এগারো জন সোস্যাল আ্যকটিভিস্ট দলিত আদিবাসী ও মানবতা চোদানো ভাইরাস এখন জেলে। U APA আইনে।
সুধা ভরদ্বাজ…সহ নয় জন আগে থেকেই জেলে বসে।

এরা গুলি খেলে আমরা খুব বিচলিত হয়ে পড়তাম, স্লোগানে কবিতায় পোস্টারে ভরে দিতাম সোস্যাল মিডিয়ার দেয়াল, তাই আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের কারণে এঁদের জেলে পাঠানো হচ্ছে।

আমরা তো এখন লকড করে নিয়েছি নিজেদের বলুন! একদম সোস্যাল ডিষ্টান্সিং !
তাই কোন ট্যা ফু করিনি !

এত এত দ্বেষদ্রোহী কলেজ ইউনিভারসিটি,আই আই টি,আই আই এম আই,জে এন ইউ তে খোলা হাওয়ায় ঘুরে বেড়াচ্ছে ভাবলে কেমন ইনসিকিওরড ফিল হয় না !

শ্মাশাণ শকটে শুয়ে শুয়েই ভূত হওয়ার আগেই তাই আমরিকা,উরোপ চিনের পশ্চাৎ মারার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

নইলে মুশকিল পাছে ইন্ডাস্ট্রিয়ালিস্ট ও অস্তর ব্যবসায়ীরা গুস‌্যায় লাল হয়ে হাও মাও করে “তোমার নাম আমার নাম চিনের নেতা মাও সেতুং করে ওঠে।

কারণ বিশ্ব বাজার যখন চিনের হাতে। ( সস্তায় প্লাস্টিক বডি একে ৪৭ ও অন‌্য যূদ্বাস্ত্র বানাবে ও বিক্রি করবে।যা যূদ্ধের ময়দানে নির্ঘাত কাজ না করায় মানুষ আর কত ঘুষোঘুষি করবে বলুন! তো ভবিষ্যত যূদ্ধ ফ্রি দুনিয়া আমরা পেতে চলেছি।

জাস্ট ভাইরাস ফ্রি হতে হবে জানু ..

জে এন উ ছাত্র লিডার ওমর খালিদের স্পিচ কেটে কুটে “যথেস্ট জোরালো” দেশদ্রোহিতার ও রিসেন্ট দিল্লি দাঙ্গর মাস্টারমাইন্ড হিসেবে হাতে নাতে প্রমানে সফল হয়ে ঘাম দিয়ে জ্বর ছেড়েছে।

শালা এমন ক্রিয়েটিভ সন্ত্রাসবাদী সনাক্ত করণ খোদ শার্লক হোমসের পাইপও পারতোনা।( লকডাউনে,তামাক, গাঁজা পাওয়া যাচ্ছে না.হেতু ও বটে)

ওদিকে এন আর সি,সি এ এ নিয়ে প্রতিবাদ প্যায়তারা করে ইন্টারন্যাশনাল দৃষ্টি আকর্ষণ! ভগৎ সিং ভেবেছিলে নিজেদের? তো বাছারা হাজতে।

মানে ঐ জামিয়ার ,ছাত্র লিডার Miran Haider ও Safoora Zargar.শাহিন বাগের পেছনে ছিল বলে নাকি কথা !

আরে মোসলমানের বাচ্চা ইউনিভার্সিটি গেলেও এ সন্ত্রাসীই হয় ! এ আর বলতে?

“দিল্লির দাঙ্গার ‘পেছনে’ এরাই ছিল,কন্ক্রিট এভিডেন্স আছে ” সো UAPA!

কাশ্মীরের ইন্টারন্যাশনাল ফোটো জার্নালিস্ট Masrat Zahra ও রাইটার,কমেনটেটর Gowhar Gilani বুকড একই কারণে,Wire news র জার্নালিস্ট, ফাউন্ডার ভি আছে একি দোষাভুক্ত!

UAPA মানে Unlawful Activities Prevention Act.হেব্বি আইন। টেররিজম,দেশ কি খতরা এসবের জন্য স্পেশাল। অভিযুক্ত দের নিজ পক্ষ সমর্থনের কোন চান্স নাই,সাত বছর জেল।

এঁরা সবাই এই UAPA বাঁশ পেয়েছে।

কেস হ্যায়ই এ্যয়সি !

কানহাইয়া,তুললেই হ‌লো,একটু ইঁদুর খেলা চলছে আর কি!

ওদিকে এক কেরা পোকা ওয়ালা জাজ মুরলিধরন কপিল মিশ্রা,অনুরাগ ঠাকুরদের ভিডিও প্রমানে দিল্লি নিধন ইভেন্টের হোতা হিসেবে আ্যরেস্ট অর্ডার দিলেও সোনার ছেলেরা নিম্নাঙ্গ উঁচিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

মুরলী এখন পাঞ্জাবে পাঞ্জাবি পরে গুরুদোয়ারাতে “ওহে গুরু” গাইছে!

(ভবিষ্যতের মোদী – শাহর ফোট কপি হিসেবে কপিল -কেজরিওয়াল জুটিকে দেখার আশায় দেশের বেশ্যালয়গুলোতে বিনিয়োগের জোর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে পুঁজিপতিদের!)

জাকগে এদিকটাও সামলে গেল ভালোই ভালোই!

হ্যায় না হামারা দেশ কি সংবিধান ও মহামান্য আইনের উপর ভরসা !

ইসি লিয়েই তো সেক্সুয়াল ক্রাইম ও বাবরি ধর্ষণ, সরি ভারডিক্ট উপহারের বদলে রাজ্যসভায় গোগোই সাবকো গোয়ার্তুমি না করে পার্লামেন্টীয় চোদাচুদির একটা সিট দেওয়া ফর্জ বনতা হ্যায় কি নেহি!

আহা, এনারাই তো আবার এই দেশেই পুনর্জন্মে এসে থ্রিসাম,ফোর্থসাম খেলবে !

“জয় শিম্পাঞ্জি..”

এদিকে নিজামুদ্দিন নিয়ে জমলেও আর কতদিন টানা যায়, তাছাড়া কুকীর্তি সব ফাঁস হয়ে গেল। বিদেশী হুমকি ভি আসলো.. হু খেপে গেল “হোয়াট দ্যা হেল!”

তো মহারাষ্ট্রের পালঘর, বিজেপি অধ্যুসিত গিরামে দুই সাধুকে মব লিন্চিঙ ক্রনোলজি মেনে ! পিটিয়ে মারা হলো, আগের দিনই বান্দ্রায় মজদুর জমা হয়েছে লাখোমে!

বহু চেষ্টা হলো মুসলমানি টুপিতে আর একটা পালক জোড়ার। উদ্ভব ঠাকরে কিলিয়ার করলো সব,ফির চেষ্টা চলিতেছে নাঙ্গা হওয়ার জাতিগত ভাবে।ইন্টারন্যাশনাল গ্রেট রগড় শো শীঘ্রই আসিবে।

নাঙ্গা সাধু্র মিছিল হবে বলিউড নগরীমে..!

এবং আবারো “শার্লক হোমসের পশ্চাৎ মারতে সফল হইলো ফেলুদা”

সোনিয়া গান্ধী ১৬ এপ্রিল ২০২০ তে দুই সাধুকে পিটিয়ে মারার জন্য মহারাষ্ট্রে সরকার গড়েছে কারণ এই সাফল্য রিপোর্ট ইতালিতে পাঠালে ইতালি গম্মেন্ট সোনিয়াকে “শুয়োরের ফার্ম” খোলার জন্য তিন কাঠা জমি এক টাকার বিনিময়ে দেবে!

তো যথারীতি রাশিয়ার কেজিবির সহায়তায় সেটা একমাত্র ক্র্যাকড করতে পেরেছে বিজেপি মেড,সরি একমাত্র সফল প্রোডাক্ট “মেড ইন্ডিয়া”গোয়েবলস অর্নব গো+ স্বামী !

তো আমরা জানি ভগবান সবসময় সত্যের মানে ক্ষমতার পক্ষে। এক্সিসটেনসিয়াল ক্রাইটেরিয়া ইয়ার!
গরীব,ভিখিরির হাত ধরে ভগবান টিকতে পারতোনা।
আরে মনসা, বেহুলা মনে নেই ..!

তো দেশে জুড়ে ভোলাভালা সেক্সি সুদর্শন তীক্ষ্ণ ধী ধী.. ইতিহাস পড়া, দেশজ হারবাল, মানে জড়িবুটির প্রায় মিরাকিউলাস,সুকুমারভ্রমতি, দেশিকোত্তম,
দেশোধ্যারকমতিসু, দেশাধিরাজ, দ্বেষাদিদেব, দ্বেষাধিপতি, দ্বেষমহিমামহিম,দ্বেষগানাসুরোসূয়োরাপতি, দেশচোদনাসক্তমসুখা, দ্বেষাপ্রিয় তরুণ “খূন হি খুন” অর্নবের নামে এফ আই আর!

এবং মহামহিম সুপ্রিমকোর্ট রাজার জামাইয়ের সুরক্ষা তিন সপ্তাহের জন্য কঠিনভাবে নিশ্চিত করেছেন। কেউ যেন বাল ছুঁতে পর্যন্ত না পারে।
আলবাত করবে!

কে করিবে হিংসার আবহ সঙ্গীত কম্পোজ !
হিলে গেছে লিগাল, ইল্লিগাল বাপেদের বাঁড়া !

তথ্য সম্রচার মন্ত্রী তো ভাবতে পারছেনা, টিভি উইদআউট গোস্মামী! মহেঞ্জোদরো দাড়ি ভি খাড়া। এবার বসংবদ কুত্তার খিদমতের মোওকা ,ঋন শোধের!

অর্নব নাটক মঞ্চস্থ করেছে,খেলেছ এবং ধরা পড়েছে!পিটাই খাওয়ার কাহানি ঘটনার দুই ঘন্টা আগেই রেকর্ড হয়েছিল। ইভেন তার আপলোডের এক মিনিট আগে এক ক্লোজ ভক্ত আপলোড করে!

হবেনা কেন রামরাজ্যে ! মহাভারত ভি লেখা হয়ে গেছিল কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের আগে। একেই স্ট্রাটেজি বলে গুরু!

ঐ প্রযুক্তি শুধু গোলমাল করে দিল !

করোনা নিয়ে দুনিয়া লড়ছে, আমেরিকার জনগণ এই একনায়কতন্ত্রের বিরুদ্ধে ( লকডাউনের নামে) রাস্তায় নেমেছে। এ এক বর্বর প্রাকটিস উইদাউট রেসপনসিবিলিটি,জোর খাটানোর ম্যাল প্র্যাকটিস,সব রাস্তা বন্ধ করে আখের গোছানোর, অন্ধকারে ঠেলে দেওয়া,ব্যাকমেলিঙ!

আমাদের মাইগ্রান্ট লেবাররা ঘরে ফেরেনি লাখে,ভিনরাজ্যে অনাহারে ডিপ্রেশনে ..টাকা রেশন পৌঁছয়নি তাদের হাতে। এ কোন বড় কথা নয়,কবে এরা চর্ব চোষ্য করে খায় !

অসুধ এসে গেলে আমরাও পেয়ে যাবো। চিন্তা কে কবে করেছে! মোদী বুজুর্গ লোকের খেয়াল রাখতে বলেছে,আমরা হাজার হাজার কোটি টাকা তার সেবায় “পি এম কেয়ারে” ঢেলেছি! আশা এখন সে সুখে আছে।

তবু জাস্ট সিমপ্লি চোখে দেখা যায় না,একটা বুড়ো ভাম সিঙ্গেল মানুষ দেশের জন্য ঘুমোতে পারছেনা। আমরা কি নিজের বাপ মা হলে এমন করতে পারতাম ? আমরা কি প্রধান মন্ত্রীকে অবসরে পাঠানোর উদারতাটুকু দেখাতে পারিনা ! ভীষন লজ্জা হয়!

আমরা এরি মধ্যে দেশকে ভাইরাস ফ্রি করবো আমরা। ভাইরাসের নাম আর্বান নক্সাল,বা ঐ যে টুপির মধ্যে থাকে!

আমরা বাবা লকডাউনে আছি। মগজ মাথাও বন্ধ। মানে ঠিক জানিনা তো, ভাবা ও প্রকাশ করা বা কান্নার ছাড় আছে কিনা !
তাই… উইচ হান্টিং চলছে..
আজ এই পজ্জন্ত..

9 Shares