Avatar
  • ব্রাজিল আর জার্মানি সবচেয়ে বেশি বার ফাইনাল খেলেছে। উভয়ে ৭ বার করে ফাইনাল খেলেছে। এর মধ্যে ব্রাজিল সাফল্য পেয়েছে ৫ বার, আর জার্মানরা কাপ পেয়েছে মাত্র তিনবার। সর্বশেষ ২০০২ সালের জাপান-কোরিয়া বিশ্বকাপে এই দুই দলের ফাইনালে ব্রাজিল বাজীমাত করে।
  • ১৯৯৮ সালের ফ্রান্স বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক গোল হয়। সর্বমোট ১৭১ টি গোল হয়, যার মধ্যে সেবারের বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স করে ১৫ টি গোল।
  • বিদেশী কোচ নিয়ে কোন দল কোন বিশ্বকাপ জেতেনি। এখনো পর্যন্ত সকল চ্যাম্পিয়ন দেশের কোচ ছিলেন স্বদেশী।
  • ১৯৩০ সালের বিশ্বকাপ ব্যতিত সবগুলো বিশ্বকাপে ইউরোপিয়ান দেশ ফাইনালে খেলেছে।
  • খালি পায়ে খেলতে না দেওয়ার কারনে ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ থেকে ভারত তাদের নাম তুলে নেয়। 
  • স্যার ভিভিয়ান রিচার্ডস হচ্ছেন এক মাত্র খেলোয়াড় যে ক্রিকেট এবং ফুটবল বিশ্বকাপ খেলেছেন। তবে তিনি ফুটবল বিশ্বকাপের বাছায় পর্ব খেলেন।
  • ১৯৫৪ সালের বিশ্বকাপ থেকে শুরু হয় জার্সি নাম্বারের প্রচলন। গোল করার ক্ষেত্রে জার্সি নাম্বার বড় ভূমিকা রাখে বলে মনে করা হয়। এবারের বিশ্বকাপে এখনো পর্যন্ত ১০ নং জার্সি পরিহিত খেলোয়াড়রা করেছে ২০ টি গোল, সেই সাথে ৯ নং জার্সি পরিহিত খেলোয়াড়রা করেছে ১৫ টি গোল।
  • ইতালিয়ান গোলকিপার ডিনো জফ হচ্ছেন সবচেয়ে বেশি বয়সে বিশ্বকাপ জেতা খেলোয়াড়। তিনি সর্বমোট ৪ বার বিশ্বকাপ খেলেন এবং শেষ পর্যন্ত ১৯৮২ সালের স্পেন বিশ্বকাপে ৪০ বছর, ৪ মাস, ১৩ দিনে বিশ্বকাপ জিতেন।
  • ক্রোয়েশিয়ান ফুটবল খেলোয়াড় হাকান সুকুর হচ্ছেন বিশ্বকাপ ইতিহাসের সবচেয়ে দ্রুত গোলকারী। তিনি ২০০২ সালে দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে মাত্র ১০.৮ সেকেন্ডে গোল করেন।
  • ১৯৫৪ সালে প্রথম বিশ্বকাপ টিভি তে দেখান হয়, যা অনুষ্ঠিত হয় সুইজারল্যান্ডে। তবে বিশ্বব্যাপী এর সম্প্রচার শুরু হয় প্রথম ১৯৭০ সাল থেকে। 
  • ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত সর্বমোট ২২ টি ম্যাচ পেনাল্টি শুটে মীমাংসা হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে সফল দল হচ্ছে জার্মানি যারা কিনা ৪বার জিতেছে। অন্যদিকে সবচেয়ে ব্যর্থ দল হচ্ছে ইংল্যান্ড যারা কিনা তিনবারের একবারও জিততে পারেনি। 
  • ব্রাজিলের মারাকানা স্টেডিয়ামের বর্তমান ধারণ ক্ষমতা ৭৩,৫৩১। তবে ১৯৫০ সালের বিশ্বকাপ ফাইনালে সেখানে স্বাগতিক ব্রাজিল এবং উরুগুয়ের খেলা দেখতে প্রায় ১,৭৩,৮৫০ জন দর্শক টিকেট কাটে। তবে সেখানে উপস্থিত দর্শকের সংখা আরও বেশি ছিল। ধারনা করা হয় প্রায় ২,১০,০০০ দর্শক সেদিন খেলা দেখেছিল যা কিনা ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি।
  • এই বিশ্বকাপের আগ পর্যন্ত জার্মানি সবচেয়ে বেশি সংখ্যক ম্যাচ খেলেছে। তারা ৯৯ টি ম্যাচ খেলে। অন্যদিকে ব্রাজিল খেলেছে ৯৭ টি ম্যাচ।
0 Shares

ডিউস্টোন এর ব্লগ   ৩১ বার পঠিত