নাজিব তারেক

 

আমিই শেষ নবী, আমার পর আর কোন নবী আসিবে না, ধর্ম আসিবে না…

কেন?

চৌদ্দশ হিজরীর পর নারী পুরুষেরা পথে ঘুরিবে নিজ জ্ঞান ও দায়ীত্বশীলতায় নিরাভরণ হইয়া, কোনরূপ লোভ ও ভীতির বিধিতে সে স্বর্গ ও নরক খুঁজিবে না…

 

বাবা ছিলেন মসজিদের সেক্রেটারি, মসজিদ উন্নয়ন পরিকল্পনায় তাহার ব্যপক উৎসাহ… সেই পরিকল্পনায় একটি পাঠাগার স্থাপনাও ছিল। আর আমি সে পাঠাগারের নিয়মিত পাঠক। পাঠাগারে বাংলা অনুবাদে কোরান আসিলো। অমি ছুটিলাম তাহা পাঠ করিতে। মুয়াজ্জিন/লাইব্রেরিয়ান আমায় বলিলেন ‘বালক, কোরান পড়িবার আগে জগত চিন, তবেই না অাল্লাহর বানীর মর্ম বুঝিবে, কোরান যে সর্বত্তম কবিতা…’। অষ্টম বর্ষিয় বালক আমি পথে চলিলাম একখন্ড ছোটদের বিশ্বকোষ হাতে লইয়া…

 

ডঃ মরিস বুকাইল একখানা গ্রন্থ লিখিলেন, বাইবেল কুরান ও বিজ্ঞান। জগতের (মধ্যপ্রচ্যের) পুরানে পুরানে গল্পে গল্পে যে জ্ঞান সূত্র তাহার অনুসণ্ধান, কোরান হচ্ছে ‘এক লক্ষ চুয়াল্লিশ হাজার’ তম সংস্করণ, মুহম্মদ ইহাই বয়ান করিয়াছেন। অক্সর্ফোড ডিকশনারীর কততম সংস্করন আপনার হাতে?

সাধারণ মানুষের কাছে ধর্ম উপকথার বেশী কিছু নয় (সুরা বাকারা, কুরান)

 

বিশ্বকোষের পাতায় পাতায় বিজ্ঞান, সূর্য্যদেব অরুণের সাতটি ঘোড়ার সাত রং, বেনীঅাসহকলা। ওঃ নিউটন।

 

দেশে তখন সামরিক স্বৈরাচারের কাল, বড়রা ক্যাথলিক গির্জার পাশদেয়া পাদ্রীর অনুসরণে পাশ দেয়া ইমাম-এর পিছে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়েন। ছোটরা ইসলামি গণতন্ত্র মেনে প্রতি জমায়েতে ইমাম নির্বাচিত করি, জামাতে নামাজ পড়ি। বালেক হইবার কালে এ আমাদের মুসলমান হইবার চেষ্টা। এরকম একসময়ে বাবার বদলীর চাকুরীর সুবাদে রাজশাহী শহরে। ইতোমধ্যে একদল আমাদের জানাইলেন- আল্লাহ, বয়স জনিত কারণে অথবা যুদ্ধাহত হইয়া পঙ্গু অচল হইয়াছেন এবং তবে তিনি আর স্বাধীন নাই, ইহুদি নাসারাদের হাতে বন্দী-তাই এইদল আল্লাহর সার্বভৈৗমত্ব প্রতিষ্ঠায় সশস্ত্র, ইসলাম রক্ষায় সসস্ত্র, ইসলাম প্রতিষ্ঠায় সশস্ত্র।

 

Jamaat-e-Islami-01

 

[ব্রিটিশরা তাহাদের সাম্রাজ্য বজায় রাখিবার প্রয়োজনে ইহা করিয়াছে, ইহা তাহাদের কৌশল। আমাদের স্বাধীন হইবার ও থাকিবার কৌশল আমাদেরই খুজিয়া বাহির করিতে হইবে। আর এ জন্য প্রয়োজনীয় পঠন, গবেষণা করিবার দায়িত্ব আমাদেরই। মনে রাখিতে হইবে কোরান বলিতেছে, যে জাতি নিজেকে সাহায্য করেনা আল্লাহ তাহাকে সাহায্য করেন না]

ছোটদের জামাতের নির্বাচিত ইমাম, অষ্টম ক্লাসের ছাত্র সেই একদলের লিফলেট গুলি কাড়িয়া লইয়া পাশের নর্দমায় ছুড়িয়া ফেলিল। কারণ সে জানে, অনন্ত অসীম জগতের অধিকর্তা আল্লাহ, ইহুদি নাসারাদের হাতে বন্দী আল্লাহর রক্ষকদেরকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮ জন ছাত্রকে মৃত্যুমুখে ঠেলে দেবার অধিকার প্রদান করেন নাই।

‘আমি ইসলাম রক্ষার ভার নিজ হাতে রাখিয়াছি’, যদি কোরান আল্লাহর বাণী হয় তবে সেখানে তিনি ইহাই বলিয়াছেন।

 

মুহম্মদই প্রথম জানাইলেন তিনি একটি ‘ধর্ম’ লইয়া আসিআছেন। এর পূর্বের যাহারা, তাহারা নিজ পিতার ধর্মের ভ্রান্তিগুলো দূর করিতে গিয়া নবী বা রসূল হইয়াছেন। মুহম্মদ সে পথেই চলিলেন কিন্তু তিনি ‘ধর্ম’ আনিলেন এবং তিনি শেষ নবী বা রসূল।

ধর্ম হইতেছে কল্যাণমূলক আচার, বেদের রচয়িতারা বলিয়াছিলেন।

 

বাবা মাঝে মাঝে, মৃদুভাষ্যে জানান মসজিদ সেক্রেটারির পুত্রের মসজিদে না-গমন সমাজে প্রশ্ন তুলিতেছে। বন্ধুরা উদ্বিগ্ন, কল্পনার নরকের আগুনে পুড়িয়া বন্ধুটির কী হাল হইবে তাহা ভাবিয়া তাহারা শিউরিয়া উঠিতেছে। সকলে মিলিয়া তাহাকে পথে ফিরাইতে আসিলো, বিশ্বাসীজনের মধ্যে কাহারো পরিচয় মুসলিম কাহারো খ্রিস্টান কাহারো হিন্দু কাহারো সাওতাল*, জগতে ২৫০০ এর ওপর পরিচয় বিদ্যমান…

তোমার ধর্ম তোমার কাছে, আমার ধর্ম আমার কাছে (সুরা নিসা, কোরান)

 

মুহম্মদ মুহম্মদ, বণিক মুহম্মদ। তিনিই স্বপ্ন দেখিলেন পুঁজিবাদের, কোরানের ছত্রে ছত্রে তারই বয়ান…

বালেক হইবার আগে কেহ মুসলিম নও কেহ খ্রিস্টান নও কেহ ইহুদি নও, কোরান পড় এবং ঘোষণা কর ‘আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় এবং মুহম্মদ তাহার রসুল’

তোমার পিতার ধর্মই তোমার ধর্ম নয়, তোমার ধর্ম তোমার

তুমি, তুমি, তুমি

নিজে পড়, বুঝ, কোরানের বাণী। অপর ধর্মসমূহের বিপরীতে তাহা ভালো লাগিলে যৌক্তিকবোধ হইলে নিজেকে মুসলমান হিসেবে ঘোষণা কর, ‘আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয় এবং মুহম্মদ তাহার রসুল (লা ইলাহা ইল্লাললাহ্‌ মুহম্মদের রাসুলুল্লাহ)’। পিতার কোন অধিকার নাই তোমাকে ব্যপটাইস্ট করিবার, পৈতাদান করিবার…

 

ব্যাক্তির উত্থান বা আধুনিকতা একদিনে আসে নাই…

 

402917_10150512970963955_1603313838_n

 

নোট:

* দিনাজপুর কলেজে পড়ি, ছোট হইতেই দেখিতেছি সাওতালেরা সকলে খ্রিস্টান, মিশনারি স্কুলের ছাত্র। সহপাঠী যখন জানাইলো সে সাওতাল, প্রথমে বিস্ময়ে সকলে চেচাইতে লাগিলাম সাওতাল কী ধর্ম হয় নাকী? তারো আগে স্কুলের ছাত্র, রাজশাহী শহরের উপকণ্ঠে এক গ্রামমত সাওতালবাস। তাহার পাশ দিয়ে হেটে হেটে টিউশন নিতে যাওয়া। যাওয়া আসার মাঝেই জানা গেল, পিতা সাওতাল, পুত্র খ্রিস্টান, পুত্রবধুর গির্জায় যেতে মন টানে না…

0 Shares

নাজিব তারেক এর ব্লগ   ৬৭ বার পঠিত