Avatar

মানব সভ্যতার ইতিহাসের প্রথম থেকে এপর্যন্ত লক্ষ লক্ষ ধর্মগুরু, পুরোহিত, নবী-রাসুল, পাদ্রী, শিক্ষিত কিংবা অশিক্ষিত প্রায় সব শ্রেণীর মানুষ ঈশ্বরের অস্তিত্বের পক্ষে লক্ষ লক্ষ প্রমাণ উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছেন এবং অদ্যাবধি চেষ্টা করে যাচ্ছেন। অথচ পৃথিবী সৃষ্টির প্রথম থেকে এপর্যন্ত, ঈশ্বর নিজে, তার অস্তিত্বের পক্ষে একটি প্রমাণেরও ইংগিত দেয়নি। একটিবারের জন্যেও না।

শুধু মানুষই তার বিশ্বাসের মাধ্যমে প্রমাণ করার চেষ্টা করেছে ঈশ্বর এক অস্তিত্বশীল সত্তা। একজন অস্তিত্বশীল সত্তা হিসেবে ঈশ্বর এপর্যন্ত একবারের জন্যেও কোন প্রমাণ পেশ করেনি। এথেকেই প্রমাণিত হয় যে, ঈশ্বর অস্তিত্বহীন।

এখন আপনি বলতে পারেন, ঈশ্বরেরতো খেয়ে দেয়ে কাজ নাই যে তার নিজেকে নিজের অস্তিত্ব প্রমাণ করতে হবে। মজার ব্যাপার হল, এই কথাটাও আপনি অথবা আমি-ই বলছি, ঈশ্বর বলছেননা। মানুষই বলে ঈশ্বর আছেন, মানুষই বলে ঈশ্বর নেই। ঈশ্বর নিজে এসে কখনো বলেনি, আমি আছি। নিজে এসে বলতে হলে প্রথমে তার নিজের অস্তিত্ব থাকতে হবে। কেউ যখন বলে ঈশ্বর নেই, তখন অন্য একজন মানুষই সেটা defend করে। ঈশ্বর মানুষের কল্পনার সৃষ্টি, মানুষ ঈশ্বরের কল্পনা অথবা বাস্তবতা কোনটির-ই সৃষ্টি নয়। সুতরাং, ঈশ্বর অস্তিত্বহীন।

0 Shares

অ আ ক খ এর ব্লগ   ৩০ বার পঠিত