নবযুগ সম্পাদক

সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশে মুক্তচিন্তার লেখক, বুদ্ধিজীবী, অধ্যাপক, অনলাইন একটিভিস্টদের ওপর হামলা ও খুনের প্রতিবাদে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো যৌথ বিবৃতি দিয়েছে। মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষায় দ্রুত সরকারকে পদক্ষেপ নেয়ার আহবান জানিয়ে দেওয়া বিবৃতিটি বাংলা ও ইংরেজি উভয় মাধ্যমে রোববার গণমাধ্যমের কাছে পাঠানো হয়।

বিবৃতিতে তাঁরা ২০১৫ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়ায় ধারাবাহিক হত্যাকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘ধর্মীয় ও জাতিগতভাবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, নাস্তিক ও সেক্যুলার একটিভিস্টদের উপর হামলাগুলো সম্পর্কে বাংলাদেশ সরকারের যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, তা খুবই হতাশাব্যাঞ্জক।’

তাঁরা বলেন, ‘বাংলাদেশের লেখক, ব্লগার, প্রকাশক ও এক্টিভিস্টদের খুনীদের ধরবার চেষ্টা না করে উল্টো তাদের লেখালেখির জন্য দায়ী করে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পর্যায় হতে প্রদত্ত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি’।

ব্লগার, লেখক ছাড়াও বাংলাদেশে অধিকার কর্মী ও ভিন্নধর্মালম্বিরাও নিরাপদ নন উল্লেখ করে তারা বলেন, ‘ভিন্ন ধর্ম ও মতে বিশ্বাসী, সমকামীদের অধিকার বিষয়ক আন্দোলনকারী এমনকী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকও এসব হুমকি ও হামলা হতে রেহাই পান নি’।

বিবৃতিদাতাগণ বলেন- এই হামলাগুলোর কয়েকটির দায় স্বীকার করেছে ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিম বা আনসার-আল ইসলাম (আল-কায়েদার ভারত উপমহাদেশীয় নেটওয়ার্কের বাংলাদেশ শাখা) এবং বাঁকী হামলাগুলোর দায় স্বীকার করেছে আইএস।

চলমান এসব হত্যাকাণ্ডে সরকার ও পুলিশ প্রসাশনের আন্তরিকতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তাঁরা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জাম খাঁন কামালের বক্তব্যেরও সমালোচনা করেন বিবৃতিদাতারা।

বাংলাদেশের মুক্তমনা হত্যার বিচার করা এবং মুক্তবুদ্ধি চর্চার পরিবেশ তৈরি করার আহবান জানিয়ে ৪ দফা দাবিও জানানো হয় বিবৃতিতে।

বিবৃতিতে স্বাক্ষরকারীদের মধ্যে রয়েছেন অধ্যাপক অজয় রায়, অধ্যাপক আনু মোহাম্মদ, অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক এম,এম আকাশ, অধ্যাপক আলী রিয়াজ, এড. রানা দাশগুপ্ত, আহমেদিয়া মুসলিম জামাতের সহ-সভাপতি আহমেদ তাবশির চৌধুরী, ক্যালিফোর্নিয়া রিভারসাইড কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ড. দীপেন ভট্টাচার্য,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী অধ্যাপক কাবেরী গায়েন, মসাহিদা সুলতানা, ড. মোহাম্মদ তানজিমুদ্দিন খান, ড.সামিনা লুৎফা, ড. শাহিদুল আলম, লেখক অদিতি ফাল্গুণী, সুপ্রীতি ধর, মুক্তশ্রী চাকমা সাথি, খুশী কবির, ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া ভারতের কবি ও লেখক রত্নাদীপা দে ঘোষ, শিক্ষাবিদ ড. রুমানা হাশেম, সাংবাদিক কামাল লোহানী প্রমুখ।

প্রবাসে থাকা বাংলাদেশী স্বাক্ষরকারীদের  মধ্যে রয়েছেন নির্বাসিত কবি তসলিমা নাসরিন এবং দাউদ হায়দার।

ভিনদেশীদের মধ্যে রয়েছেন ঔপন্যাসিক সালমান রুশদী, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের এমিরেটাস অধ্যাপক রিচারড ডকিন্স,  সাহিত্যিক আয়ান হারশি আলি, ধর্মীয় পণ্ডিত রেজা আসলান, কাউন্সিল অব এক্স-মুসলিম-এর মুখপাত্র মরিয়ম নমাজি, সেক্যুলার লেখক মাজিদ নাওয়াজ, লেখক এবং স্নায়ুতত্ত্ববিদ স্যাম হ্যারিস, লেখক ইবনে ওয়ারাক, চলচ্চিত্র পরিচালক ও মানবাধিকার কর্মী দীয়া খান, ঙ্কুল সিং সুয়োনি, লেখক অধ্যাপক ড. পি,বি ক্লিয়র এবং ভারতীয় সুপ্রিম কোর্টের সিনিয়র আইনজীবি ও হিউম্যান রাইটস ল নেটওয়ার্কের সভাপতি ড. কলিন গঞ্জালেশসহ উল্লেখযোগ্য লেখক, কবি, শিল্পী, সাহিত্যিক, সাংবাদিক, অনুবাদক ও সেক্যুলার একটিভিস্ট।

এছাড়াও স্বাক্ষরদাতাদের  মধ্যে বিশ্বের বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয়ের  অধ্যাপক, পণ্ডিত ও গবেষকও রয়েছেন।

বিবৃতির বাংলা ও ইংরেজি ভার্সন নবযুগ ব্লগ কর্তৃপক্ষের কাছেও এসেছে। যা এখানে প্রকাশ করা হলো।

বিবৃতির পূর্ণ বিবরণ:

আমরা, নিম্নস্বাক্ষরকারী দেশ-বিদেশের শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী, মানবাধিকার কর্মী এবং প্রতিষ্ঠান, গত কিছুদিনে সন্ত্রাসীদের (উগ্র ইসলামপন্থী বলে ধারণা করা হচ্ছে) হাতে নির্মমভাবে হত্যাকান্ডের শিকার বাংলাদেশের লেখক, ব্লগার, প্রকাশক ও একক্টিভিস্টদের খুনীদের ধরবার চেষ্টা না করে উল্টো তাদের লেখালেখির জন্য দায়ী করে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পর্যায় হতে প্রদত্ত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি – তারা যেন ধর্ম, বিশ্বাস ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও অধিকার রক্ষায় দ্রুত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

২০১৫ সনের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে বাংলাদেশের লেখক, ব্লগার ও প্রকাশকরা ছয়টি ভয়াবহ হামলার শিকার হয়েছেন; সবগুলো ঘটনায় চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আক্রান্তকে হত্যা করা হয়।() ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫, বইমেলা হতে ফেরার পথে মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়; এসময় তাঁর স্ত্রী লেখক- একটিভিস্ট রাফিদা আহমেদ বন্যা মারাত্মকভাবে আহত হন। ৩০ মার্চ, ২০১৫, অফিসে যাওয়ার পথে ওয়াশিকুর রহমানকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হত্যা করে। ১২ মে, ২০১৫, ওয়াশিকুরের মত একই ভাবে খুন হন অনন্ত বিজয় দাস। ৭ আগস্ট, ২০১৫, ছয়জন জঙ্গি ঘরে ঢুকে নিলয় নীলকে কুপিয়ে হত্যা করে। ৩১ অক্টোবর, ২০১৫, সেক্যুলার বইয়ের প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে তার অফিসে কুপিয়ে হত্যা করা হয়; একই দিন প্রকাশক আহমেদুর রশীদ টুটুল, কবি তারেক রহিম ও ব্লগার রণদীপম বসুকে মারাত্মক আহত করা হয়। ০৬ এপ্রিল, ২০১৬, আইনের ছাত্র নাজিমুদ্দীন সামাদ বাসায় ফেরার পথে খুন হন।

ভিন্ন ধর্ম ও মতে বিশ্বাসী, সমকামীদের অধিকার বিষয়ক আন্দোলনকারী এমনকি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকও এসব হুমকি ও হামলা হতে রেহাই পাননি। ২৭ নভেম্বর, ২০১৫ শিয়া মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা হলে একজন নিহত ও তিনজন আহত হন। ২৫ ডিসেম্বর, ২০১৫ আহমাদি মসজিদে আত্মঘাতী সন্ত্রাসী হামলায় তিনজন আহমাদিয়া মুসলমান আহত হন। ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ সন্ত্রাসীরা একজন হিন্দু পুরোহিতকে হত্যা করে ও একজন ভক্তকে আহত করে। ১৫ মার্চ, ২০১৬, একজন শিয়া ধর্মীয় নেতা নিহত হন। ২১ মার্চ, ২০১৬, হোসেন আলি নামে ৬৫ বছরের খৃষ্ট ধর্মে ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধাকে মোটরসাইকেলে এসে চাপাতি দিয়ে হত্যা করা হয়। ২৩ এপ্রিল, ২০১৬ কর্মস্থলে যাবার পথে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ২৪ এপ্রিল, ২০১৬ একজন হিন্দু সাধুকে হত্যা করা হয়। ২৫ এপ্রিল, ২০১৬ সমকামিতা বিষয়ক বাংলাদেশের প্রথম ম্যাগাজিনের সম্পাদক জুলহাস মান্নান ও থিয়েটার আর্টিস্ট মাহবুব তনয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

এই হামলাগুলোর কয়েকটির দায়স্বীকার করেছে ইসলামি জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিম বা আনসার-আল ইসলাম (আল-কায়েদার ভারত উপমহাদেশীয় নেটওয়ার্কের বাংলাদেশ শাখা) এবং বাকি হামলাগুলোর দায় স্বীকার করেছে আইএস।

ধর্মীয় ও জাতিগতভাবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, নাস্তিক ও সেক্যুলার একটিভিস্টদের ওপর হামলাগুলো সম্পর্কে বাংলাদেশ সরকারের যে প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছে, তা খুবই হতাশাব্যাঞ্জক। এই হত্যাকাণ্ডগুলোর বিষয়ে যথোপযুক্ত কোন আইনী ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হয়নি; শুধুমাত্র কিছু অভিযোগ দায়ের ও কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জঙ্গিদের প্রকাশিত হিটলিস্টে থাকা নাস্তিক ও সেক্যুলাররা তাদের উপর জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় পুলিশের দ্বারস্থ হলে, তাদের লেখালেখি সংযত করতে ও বিদেশ চলে যেতে বলা হয়। অনেক একটিভিস্ট তথ্য, যোগাযোগ ও প্রযুক্তি আইনের (৫৭ ধারা) ভয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হননি; ৫৭ ধারা অনুসারে ধর্মবিশ্বাসের বিরুদ্ধে লেখাকে অপরাধ বলে বিবেচিত হয়। জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় থাকা নাস্তিক ও সেক্যুলারদের নিরাপত্তা ও সহায়তা দিতে এবং ইতোমধ্যে সংঘটিত জঙ্গি হামলাগুলোর বিষয়ে নিন্দা জানাতে সরকারি কর্মকর্তারা অক্ষমতার পরিচয় দিয়েছেন; বরং তারা জঙ্গি হামলাগুলোর জন্য আক্রান্ত নাস্তিক ও সেক্যুলারদের লেখালেখিকেই দায়ী করে বিবৃতি দিয়েছেন।

ব্লগার নিলয় নীল খুন হওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন-“কারো ধর্মানূভুতিতে আঘাত দেয়া উচিত নয়। ধর্মানুভূতিতে আঘাত দেয়া বন্ধ করতে হবে, আমরা কোনভাবেই ধর্মানুভূতিতে আঘাত দেয়া সহ্য করব না।” () সম্প্রতি অনলাইন এক্টিভিস্ট নাজিমুদ্দীন সামাদ খুন হওয়ার পর, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন-“তদন্তের স্বার্থে নাজিমুদ্দীনের ব্লগে আপত্তিজনক কিছু লিখেছেন কিনা তা খতিয়ে দেখা হবে।” এমন বক্তব্য পরোক্ষভাবে নাজিমউদ্দীনের হত্যাকাণ্ডকে বৈধতা দিতে সহায়তা করে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরো বলেন, “ব্লগারদের লেখালেখির বিষয়ে সর্তক হওয়া প্রয়োজন। …আমি বলতে চাই, লেখালেখির বিষয়ে আরো বেশি সতর্ক হতে হবে; যাতে লেখার মাধ্যমে- কোন ধর্ম বা, কোন বিশ্বাস বা, কোন ধর্মীয় ব্যাক্তিত্বের বিরুদ্ধে যাতে কোন আঘাত না আসে”। () এর কিছুদিন পরে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একই ধরনের বক্তব্য দেন। তিনি বলেন- ব্লগার হত্যার দায়িত্ব সরকার কেন নেবে? সবাইকে শালীনতা বজায় রাখতে হবে, কেউ অসভ্যতা করলে সরকার তার দায়িত্ব নেবে না“এইসব লেখালেখির মধ্যে আমি মুক্তচিন্তা দেখি না, নোংরামি দেখতে পায়। কেউ কেন এসব লিখবে? কেউ আমাদের ধর্ম ও নবীর বিরুদ্ধে লিখলে তা গ্রহণযোগ্য নয়। এই ধরনের লেখালেখির কারণে কোন ঘটনা ঘটলে তার দায়ি”। ()

ভিন্নমতের বিভিন্ন পেশার নিরীহ মানুষ বাংলাদেশে খুন হচ্ছে। এদের মধ্যে আছেন-লেখক, প্রকাশক, বিশ্বাসী, নাস্তিক, সেক্যুলার ব্লগারসহ অনেকেই। শান্তিপূর্ণভাবে প্রকাশ্যে মতপ্রকাশের মৌলিক অধিকারের চর্চা করায় প্রাণ দিতে হচ্ছে বাংলাদেশের উজ্জ্বল ও সম্ভাবনাময় সন্তানদের। এদিকে বাংলাদেশের সরকারি কর্মকতারা উগ্রবাদিদের পক্ষ অবলম্বন করেছেন, সংযত হয়ে মতপ্রকাশ করতে বলেছেন, নাগরিকদের নিজেদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে বলেছেন এবং জনগনের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থতা ও খুনিদের ধরতে অক্ষমতার পরিচয় দিচ্ছেন। অন্যের মতপ্রকাশের অধিকারের পক্ষে থাকার জন্যে তার মতে বিশ্বাসী হবার প্রয়োজন নেই; কেউ যদি কারো মতপ্রকাশ গ্রহণ করতে না পারে তার উত্তর সহিংসতায় নয়, পাল্টা মতপ্রকাশের মাধ্যমেই তার জবাব দিতে হয়।

মৌলিক মানবাধিকার সমুন্নত রাখতে বাংলাদেশ অঙ্গিকার করেছে। সংবিধান প্রতিটি নাগরিকের বেঁচে থাকার স্বাধীনতা (অনুচ্ছেদ – ৩২), বিবেক ও চিন্তার স্বাধীনতা (অনুচ্ছেদ – ৩৯) এবং ধর্মীয় স্বাধীনতার (অনুচ্ছেদ – ৪১) প্রতিশ্রুতি দেয়। বাংলাদেশ আর্ন্তজাতিক নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকার চুক্তিতে সাক্ষরকারী দেশ; যার মাধ্যমে নাগরিকদের জীবন ধারণের অধিকার (অনুচ্ছেদ – ৬), কোন ধরনের বৈষম্যের শিকার না হওয়ার স্বাধীনতা (অনুচ্ছেদ – ২), চিন্তা- বিবেক ও ধর্মের স্বাধীনতা (অনুচ্ছেদ – ১৮) এবং অভিব্যক্তির স্বাধীনতা (অনুচ্ছেদ – ১৯) দেয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, এখানে সহিংসতা ও প্রতিহিংসার ভয় ছাড়াই ধর্মীয় বিশ্বাস ধারণ করা বা না করা, ধর্মীয় বিশ্বাস পরিবর্তন বা ত্যাগ করা, এবং যেকোন বিশ্বাস, ধারণা ও মতামত সম্পর্কে মুক্তভাবে মতপ্রকাশ ও উন্মুক্ত আলোচনা করার স্বাধীনতার নিশ্চয়তা দেয়া আছে।

 

তাই, আমরা আহবান জানাচ্ছি-

  • বাংলাদেশ সরকার যেন ধর্ম, বিশ্বাস ও মতামত প্রকাশ, ধর্মীয় ও জাতিগতভাবে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী, নারী, নাস্তিক ও সেক্যুলারসহ সকল নাগরিকের অধিকার সংরক্ষণ করে।
  • বাংলাদেশ সরকারের কর্মকর্তারা ধর্ম ও সংস্কৃতির দোহাই দিয়ে আক্রান্তদের অধিকার যেনো অস্বীকার না করেন। এবং তারা যেন ভিন্ন মত ও ধর্মের অনুসারী, নাস্তিক ও সেক্যুলারদের উপর হামলার নিন্দা করেন এবং এ বিষয়ে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।
  • বাংলাদেশ সরকার যেন ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ হতে সংঘটিত হত্যাকাণ্ডগুলোর যথাযথ তদন্তের উদ্যোগ নেয় এবং জড়িতদের যথোপযুক্ত বিচার ও শাস্তি নিশ্চিত করে।
  • আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যেন মানবাধিকার সংকটের এই ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রতি তাদের সংহতি ও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়।

 

STATEMENT ON ATTACKS ON WRITERS, ACTIVISTS, BELIEVERS, SECULARISTS AND ATHEISTS IN BANGLADESH

We, the undersigned academics, intellectuals, human rights advocates, and organizations from Bangladesh and around the world, unequivocally condemn recent statements by Bangladesh government officials appearing to blame writers, bloggers, publishers, and activists for their own deaths at the hands of violent extremists with suspected links to militant Islamist groups. We strongly urge the Bangladesh government to immediately take steps to vigorously protect the rights to freedom of religion, belief, and expression, both in word and in deed.

Since February 2015, there have been six deadly attacks on writers, bloggers, and publishers in Bangladesh, all by machete-wielding militants. (1) On February 26, 2015, Avijit Roy, founder of the freethought forum Mukto-Mona, was killed while leaving a book fair, which he was visiting with his wife, author and activist Rafida Bonya Ahmed. Ahmed survived, but was seriously injured. On March 30, 2015, Washiqur Rahman was killed by a group of extremists while on his way to work. On May 12, 2015, Ananta Bijoy Das was killed in the same fashion. On August 7, 2015, Niloy Neel was killed when six men tricked their way into Niloy’s home, locked his partner in a room, and hacked Niloy to death. On October 31, 2015, Faisal Arefin Deepan, a Muslim publisher of secularist books, was killed at his publishing house. The same day, three others — Ahmedur Rashid Tutul, Tariq Rahim, and Ranadipam Basu — were seriously injured in a similar attack at another publishing house. And, on April 6, 2016, law student Nazimuddin Samad was attacked and killed while returning home from class.

Religious believers, LGBT rights activists, and university professors have also been subjected to threats and violent attacks. On November 27, 2015, gunmen attacked a Shia mosque, killing one and injuring three. On December 25, 2015, a suicide bomber injured three at an Ahmadi mosque. On February 21, militants killed a Hindu priest and injured a devotee. On March 15, 2016, a Shia cleric was killed. On April 23, 2016, university English professor Rezaul Karim Siddique was hacked to death on his way to work. On April 24, another Hindu devotee was killed. And, on April 25, 2016, Xulhaz Mannan, editor of Bangladesh’s first LGBT magazine, and a fellow LGBT rights activist and theatre artist, Mahbub Tanay, were stabbed to death.

While some of these attacks have been claimed by terrorist groups such as Ansarullah Bangla Team and Ansar-al Islam, the Bangladesh branch of Al Qaeda in the Indian Subcontinent, others have been claimed by Daesh (IS).

The response from the Bangladesh government to these attacks has been extremely disappointing; the response to attacks on atheists and secular activists has been particularly disheartening. No one has yet been held to account for the killings. While some arrests have been made, few charges have been filed against the perpetrators. Some threatened atheists and secularists, who are on public hit lists released by militant Islamist groups suspected in ongoing attacks, have been told to self-censor or go into exile when requesting assistance from law enforcement. Many activists are also hesitant to approach the police, fearing that they could be charged under the Information, Communications, and Technology Act, which criminalizes writings that hurt religious belief. Government officials have failed to take action to help protect and support threatened atheists or secularists, or publicly condemn the killings. Officials have instead distanced themselves from the victims, or even appeared to blame the deceased for their own murders.

After the murder of Niloy Neel, Prime Minister Hasina stated, “You can’t attack someone else’s religion. You’ll have to stop doing this. It won’t be tolerated if someone else’s religious sentiment is hurt.” (2) After the recent murder of Nazimuddin Samad, Home Minister Asaduzzaman Khan stated that part of the investigation would be “to see whether he has written anything objectionable in his blogs,” implying that would provide some justification for Samad’s death. Minister Khan would also state, “The bloggers, they should control their writing. … I want to say that people should be careful not to hurt anyone by writing anything — hurt any religion, any people’s beliefs, any religious leader.” (3) Just days later, Prime Minister Hasina shared similar sentiments, stating in regards to secular bloggers, “I consider such writings as not free thinking but filthy words. Why anyone would write such things? It’s not at all acceptable if anyone writes against our prophet or other religions. Why would the government take responsibility if such writings lead to any untoward incidents? Everyone should maintain decency. Or else the government wouldn’t take the responsibility for any uncivilised attitude.” (4)

These killings of innocent dissenting people, people from different sects, writers, and publishers, atheist and secularist bloggers in Bangladesh — simply for peacefully exercising their basic rights to freedom of religion, belief, and expression — are robbing Bangladesh of some of its brightest minds and bravest human rights defenders. It is inexcusable that government officials have, by and large, chosen to side with violent extremists, asked citizens to self-censor, and failed to provide protection or hold the killers to account. One need not agree with another person’s opinions to believe in their right to express those opinions; and, if one finds another person’s expressions unacceptable, the answer is not violence — it is counter-expression.

Bangladesh has made commitments to uphold fundamental human rights. The Constitution guarantees all citizens the rights to life (Article 32), freedom of conscience and speech (Article 39), and freedom of religion (Article 41). Additionally, Bangladesh is a signatory to the International Covenant on Civil and Political Rights, which protects the right to life (Article 6), to not be discriminated against on various grounds (Article 2), to freedom of thought, conscience, or religion (Article 18), and to freedom of expression (Article 19). This includes the liberty to adopt or not adopt a religious belief, to change or leave a religion or belief, and to speak freely and engage in public discourse about one’s beliefs, ideas, or convictions, without fear of violent reprisals.

We therefore call on:

  • The Bangladesh government to vigorously protect the full exercise of the freedoms of religion, belief, and expression, threatened religious & ethnic minorities, women, atheists and secularists, and all those exercising their rights in their country;
  • Bangladesh government officials to stop citing religion and culture as a justification to refuse the rights of certain Bangladeshis in public statements, and forcefully and categorically condemn violent attacks on people of different beliefs, sects, atheists, secularists, and all those exercising their rights;
  • The Bangladesh government to conduct prompt, thorough, effective, independent, and impartial investigations into the killings since February 2015, and ensure that all those responsible are brought to justice in fair trials which respect international standards;
  • The international community to extend support and solidarity to Bangladesh to address this human rights crisis.

Footnotes:
http://www.centerforinquiry.net/blogs/entry/timeline_of_attacks_on_bangladeshi_writers_and_bloggers/
http://www.reuters.com/article/us-usa-bangladesh-assassination-exclusividUSKBN0NW04S20150511
http://bdnews24.com/bangladesh/2015/09/03/prime-minister-hasina-says-hurting-religioussensitivities-will-not-be-accepted
http://www.cnn.com/2016/04/09/asia/bangladesh-al-qaeda-atheists/index.html
http://newagebd.net/220912/pm-for-exercising-tolerance-discourages-hurting-religioussentiment/

 

এ বিষয়ে বাংলাদেশের ব্লগার, অনলাইন একটিভিস্ট ও ব্লগ কর্তৃপক্ষের যৌথ বিবৃতিটিও পড়তে পারেন এখানে:

ব্লগার লেখক হত্যা: ব্লগারদের যৌথ বিবৃতি

 

স্বাক্ষরকারীগণ

INDIVIDUALS:

Aase Gjerdrum
Editor and translator

 

Ahmad Tabshir Choudhury
National Vice President (External Affairs & Public Relation)
Ahmadiyya Muslim Jama’at, Bangladesh

Dr. Ajoy Roy
Retired professor, Dhaka University.

Alan Levinovitz, PhD
Assistant Professor
Department of Philosophy and Religion
James Madison University

Alexis de Roode
Poet, Netherlands

Alf R. Jacobsen
Writer, Norway

Ali Riaz
University Professor and Chair, Department of Politics and Government
Illinois State University, USA

Amanda Sebestyen
Director of Asylum Education and Legal Fund
& Member of National Union of Journalists
London, UK.

Amit R. Baishya, PhD
Assistant Professor
Department of English
University of Oklahoma

Amrapali Basumatary, PhD
Assistant Professor
Department of English
Kirori Mal College
University of Delhi

Amritjit Singh, PhD
Langston Hughes Professor of English
Ohio University

Ania Loomba, PhD
Catherine Bryson
Professor of English
University of Pennsylvania

Anindya Kanti Biswas
Editor-in-Chief kalakinkar.com

Anirban Baishya, PhD Candidate
School of Cinematic Arts
University of South California

Ann Grodzins Gold, PhD
Chair, Department of Religion Thomas J. Watson Professor of Religion and Professor of Anthropology
Syracuse University

Anne B. Reinertsen
Professor in Education
Norway

Anu Muhammad
Professor, Department of economics, Jahangirnagar University,
Savar, Dhaka

Arifur Rahman
Cartoonist, Member of Norwegian PEN,
Bangladesh/Norway

Arnt Birkedal
Writer, Norway

Aruni Kashyap
Writer and Translator
Assistant Professor of English
Ashoka University, India

Asbjørn Øverås
Editor, Norway

Åse Brandvold
Journalist and Author, Norway

Atle Naess
Writer, Norway

Audity Falguni
Writer, poet and activist, Bangladesh

Austin Dacey, PhD
Author and Philosopher

Ayaan Hirsi Ali
Founder
AHA Foundation

Boris van der Ham
Chairman
Dutch Humanist Association

Bernt Bølviken
Advisor, Aschehoug Publishing house,
Norway

Birgithe Schumann-Olsen
Librarian
Member Norwegian PEN

Brynjar Bjerkem
Programme manager,
Transnational Arts Production, Norway

Brit Bildøen
Writer, Norway

Caroline Halliday
Writer and artist

Choity Ahmed
Peet, Feminist activist
Editorial board member of
Anupranan Literary magazine, Bangladesh

Dr. Colin Gonsalves
Senior Advocate
Supreme court of India
Chairman Human Rights Law Network

Christopher Grøndahl
Novelist/screenwriter
Norway

Daud Haider
Poet

Debasish Sarker
PhD Candidate, Experimental Thermofluid Dynamics,
Helmholtz -Zentrum Dresden Rossendorf, Germany

Deeyah Khan
Filmmaker and Activist

Dipen Bhattacharya, PhD
Assoc. Professor of Physics and Astronomy
Moreno Valley College

Doranne Jacobson
Research Associate, Columbia University

Elham Manea, PhD
Associate Professor
Department of Political Science
University of Zurich

Elin Ørjasæter
Author, Associate Professor,
Member Norwegian PEN

Faizun Zackariya
Citizens’ Voice for Justice and Peace

Fariborz Pooya
Host, Bread and Roses TV

Frederique Hijink
Humanist, Netherlands

Geraldine Forbes, PhD
Distinguished Teaching Professor Emerita
Department of History State
University of New York at Oswego

Grace Westcott
Executive Director, PEN Canada

Gretta Vosper
Minister, United Church of Canada

Gro Kjernli
Member of PEN Norway

Gudmund Vindland
Novelist, Norway

Gunn Hild Lem
Writer and editor, Norway

Gyrid Axe Øvsteng
Writer, Norway

Hana Shams Ahmed
Activist and MA Student
University of Western Ontario

Hanne Herrman
Independent artist, Norway

Hans Tarjei Skaare
Teacher
Nansen Academy, Lillehammer, Norway

Harald S. Klungtveit
Journalist
Member of Norwegian PEN

Håvard Strand
Freelance Journalist and Member of Norwegian PEN

Hege Newth Nouri
Secretary General
Norwegian PEN

Hilde Ghosh Maisey
General Manager
Transnational Arts Production (TrAP)

Ibn Warraq
Author

IdaLou Larsen
Journalist, Norway

Ika Kaminka
Chair, Norwegian Literary Translators Association
Member of Norwegian PEN

Imran H. Sarker
Blogger and Secular Activist
Bangladesh

Inger Sverreson Holmes
Translator representing Norwegian Non-Fiction Authors’ and Translators’ Organisation NFF

Iva Gavanski
Advisor, WiPC
Norwegian PEN, Norway

Jahanara Nuri
Writer , Human Rights Activist, Bangladesh

Jay Rajiva, Phd
Assistant Professor
Global Anglophone Literature
Department of English
Georgia State University

Johanne Fronth-Nygren
Translator and writer
Member of Norwegian PEN

Jyotirmoy barua, Barrister at Law,
Advocate, Supreme Court of Bangladesh and Human Rights Activist.

Kaberi Gayen
Assistant Professor, Dhaka University

Kamal Lohani
Journalist and Cultural Activist

Karen Leonard, PhD Professor Emeritus
Department of Anthropology
University of California, Irvine

Khushi Kabir
Feminist and Human Rights Activist

Knut Nærum
Writer, Norway

Kristin Skare Orgeret, PhD
Professor, Department of Journalism and Media Studies
Oslo and Akershus University College

Kristina Quintano
Publisher and Translator, Norway

Kumar Rana
Project director, Pratichi India trust

Lawrence M. Krauss, PhD
Foundation Professor
School of Earth and Space Exploration and
Physics Department
Director, Origins Project Arizona State University

Line Alice Ytrehus
Professor, Intercultural studies, NLA University college, Norway
Member of PEN Norway

Lucy Bland
Professor of Social and Cultural History,
Anglia Ruskin University, Cambridge

Maajid Nawaz
Author and Activist
Founding Chairman, Quilliam

Madhurima Chakraborty, PhD
Assistant Professor
Department of English
Columbia College Chicago

Makiko Kimura, PhD
Associate Professor
Tsuda College
Shimin Gaikou Centre

Mara Matta
Professor of Modern Literatures of the Indian Subcontinent
Sapienza University of Rome, ITALY

Marieme Helie Lucas
Former Faculty (Social Sciences)
Algiers University
Founder, Secularism Is A Women’s Issue

Marius Kolbenstvedt
Actor, Norway

Maryam Namazie
Spokesperson, Council of Ex-Muslims of Britain and One Law for All
Producer, Bread and Roses TV

Maskwaith Ahsan,
Author, Journalist, Educator

Massimo Pigliucci
K.D. Irani Professor of Philosophy
City College of New York

Max Farrar, PhD
Emeritus Professor
Department of Sociology
University of Leeds, UK.

Mehnaaz Momen,
Associate Professor
Texas A & M International University

Mehran Amirahmadi
Author, Iran/ Norway.
Member of Norwegian PEN

Mette C. Newth
Writer and translator, Norway.

Michael Bauer
CEO, Bavarian Humanist Association, Germany, Author

Michael De Dora
Director of Public Policy; UN Representative
Center for Inquiry

Michael Kazimierz O’Dwyer
Physics/Maths Teacher, Midlothian, Scotland.

Mitul Baruah, PhD Candidate
Geography Department
Syracuse University

M. Akash
Professor, Department of Economics,
Dhaka University

Mohammad Tanzimuddin Khan, PhD
Associate Professor
Department of International Relations,
University of Dhaka, Bangladesh

Morten Harry Olsen
Author, member of Norwegian PEN, Norway

Moshahida Sultana
Assistant Professor, University of Dhaka

Muktasree Chakma Sathi
Researcher, feminist and rights activist
Bangladesh

Nakul Singh Sawhney
Filmmaker

Dr Natalia Paszkiewicz
Independent researcher, United Kingdom

Nigel C. Hughes, PhD
Professor, Department of Earth Sciences
University of California, Irvine

Nils Nordberg,
Writer, Norway

Ole Robert Sunde
Autore, Member Norwegian PEN.

Pål Moddi Knutsen
Musician
Member of Norwegian PEN

Papori Bora, Phd
Assistant Professor
Centre for Women’s Studies
Jawaharlal Nehru University

Patricia Ann Melsom
Journalist, Editor, Writer
Norway

P.B. Cliteur, PhD
Professor of Jurisprudence
University of Leiden

Per Kværne
Professor Emeritus, University of Oslo, NORWAY

Prof. Haim Bresheeth
Professorial Research Associate
Faculty of Arts and Humanities
School of Oriental and African Studies
And Director of Camera Obscura Films

Ragnar Aalbu
ILLUSTRATOR / AUTHOR OF CHILDREN’S BOOKS
Member of the Norwegian PEN

Ragnar Aamodt, author
Member Norwegian PEN
Norway

Raihan Sharif
Fulbright Scholar
Washington State University.

Ranabir Samaddar, PhD
Distinguished Chair in Migration and Forced Migration Studies Calcutta Research Group

Rana Dasgupta
General Secretary, Hindu-Buddhist-Christian Unity Council

Ratnadipa De Ghosh
Poet, Author & Humanist
Bengaluru, India.

Raza Rumi
Scholar in Residence
Ithaca College, NY

Reza Aslan
Author and Religious Scholar

Richard Dawkins
Emeritus Professor
University of Oxford

Ricky Varghese, PhD, RSW
Psychotherapist

Rumana Hashem, PhD
Post-doc Researcher
Centre for Research on Migration, Refugees and Belonging
University of East London, UK

Russell Blackford, PhD
School of Humanities and Social Science University of Newcastle, NSW

Salman Rushdie
Novelist
Sam Harris, PhD
Author and Neuroscientist

Samina Luthfa, PhD
Assistant Professor, Department of Sociology
University of Dhaka, Bangladesh

Sean Dowdy, PhD Candidate
Department of Anthropology
University of Chicago

Shahidul Alam PhD
Photographer, Writer and Curator
Bangladesh

Shelley Feldman, PhD
Professor
Department of Development Sociology
Cornell University

Shuvo Rahman
Journalist, Columnist and Writer
Former Joint Secretary General, Bangladesh Federal Union of Journalists (BFUJ)

Stein Versto
Aauthor and poet, Norway

Steven Pinker, PhD
Johnstone Professor of Psychology
Harvard University

Supriti Dhar
Editor, womenchapter.com

Susan Wadley, PhD
Director, South Asia Center
Syracuse University

Suzanne Hanchett, PhD
Partner, Planning Alternatives for Change LLC

Taslima Nasreen,
Author

Terje Torkildsen
Author and Comedian, Norway
Tor Edvin Dahl
Writer, Norway

Truls Lie
Editor, Norway

Varuni Bhatia, PhD
Assistant Professor
Asian Languages and Cultures Department University of Michigan

Willy Tore Mørch
Professor emeritus
Norway

Zobaen Sondhi
Editor, Nobojug blog
Editor and Publisher, Ongshumali
Bangladesh.

 

 

ORGANIZATIONS:

  1. 21st Century Wilberforce Initiative
  2. American Atheists
  3. American Humanist Association
  4. Asian Forum for Human Rights and Development (FORUM-Asia)
  5. Atheist Alliance International
  6. Atheist Foundation of Australia 
  7. Atheist Republic
  8. British Humanist Association
  9. Canadian Journalists for Free Expression
  10. Canadian Secular Alliance
  11. Cartoonist’s Club
  12. Center for Inquiry
  13. Centre for Inquiry – Canada
  14. Centre for Secular Space UK
  15. Christian Solidarity Worldwide – UK
  16. Council of Australian Humanist Societies
  17. Dutch Humanist Association (Humanistisch Verbond)
  18. European Humanist Federation
  19. Federation of Indian Rationalist Association (FIRA)
  20. Freedom House
  21. The Hague Peace Projects
  22. Hamburg Foundation for Politically Persecuted
  23. Humanist Society Scotland
  24. Icelandic Ethical Humanist Association
  25. International League of Non-Religious and Atheists (Germany)
  26. International Humanist and Ethical Union
  27. Insan Foundation Trust
  28. Islam-Watch
  29. Liberty South Asia
  30. Mukto-Mona
  31. Nobojug
  32. One Law for All
  33. Open Doors
  34. Organizing Committee, Chittagong Hill Tracts Campaign
  35. PEN American Center
  36. PEN Nederlands
  37. Progressive Atheists, Inc. (Australia)
  38. Muslims for Progressive Values
  39. Raif Badawi Foundation for Freedom
  40. Rationalist Society of Australia
  41. Richard Dawkins Foundation for Reason & Science
  42. Secular Coalition for America
  43. Secular Coalition of Australia
  44. Secular Party of Australia
  45. Secularism Is A Women’s Issue
  46. Swedish Humanist Association
  47. University for Humanistic Studies (Universiteit voor Humanistiek)

 

নিউজমিডিয়া ও অন্যান্য ব্লগে প্রকাশিত লিংকসমূহ:

 

১. চ্যানেল আই অনলাইন

২. ইস্টিশন ব্লগ

৩. চুতরাপাতা

৪. সিলেটটুডেটোয়েন্টিফোর ডটকম

 

 

বিবৃতির পূর্ণ বিবরণ
আমরা, নিম্নস্বাক্ষরকারী দেশ-বিদেশের শিক্ষাবিদ, বুদ্ধিজীবী, মানবাধিকার কর্মী এবং প্রতিষ্ঠান, গত কিছুদিনে সন্ত্রাসীদের (উগ্র ইসলামপন্থী বলে ধারণা করা হচ্ছে) হাতে নির্মমভাবে হত্যাকান্ডের শিকার বাংলাদেশের লেখক, ব্লগার, প্রকাশক ও একক্টিভিস্টদের খুনীদের ধরবার চেষ্টা না করে উল্টো তাদের লেখালেখির জন্য দায়ী করে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পর্যায় হতে প্রদত্ত বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। আমরা বাংলাদেশ সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি – তারা যেন ধর্ম, বিশ্বাস ও মতপ্রকাশের স্বাধীনতা ও অধিকার রক্ষায় দ্রুত যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।

২০১৫ সনের ফেব্রুয়ারি মাস থেকে বাংলাদেশের লেখক, ব্লগার ও প্রকাশকরা ছয়টি ভয়াবহ হামলার শিকার হয়েছেন; সবগুলো ঘটনায় চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে আক্রান্তকে হত্যা করা হয়। (১) ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৫, বইমেলা হতে ফেরার পথে মুক্তমনা ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়; এসময় তাঁর স্ত্রী লেখক- একটিভিস্ট রাফিদা আহমেদ বন্যা মারাত্মকভাবে আহত হন। ৩০ মার্চ, ২০১৫, অফিসে যাওয়ার পথে ওয়াশিকুর রহমানকে সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে হত্যা করে। ১২ মে, ২০১৫, ওয়াশিকুরের মত একই ভাবে খুন হন অনন্ত বিজয় দাস। ৭ আগস্ট, ২০১৫, ছয়জন জঙ্গি ঘরে ঢুকে নিলয় নীলকে কুপিয়ে হত্যা করে। ৩১ অক্টোবর, ২০১৫, সেক্যুলার বইয়ের প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে তার অফিসে কুপিয়ে হত্যা করা হয়; একই দিন প্রকাশক আহমেদুর রশীদ টুটুল, কবি তারেক রহিম ও ব্লগার রণদীপম বসুকে মারাত্মক আহত করা হয়। ০৬ এপ্রিল, ২০১৬, আইনের ছাত্র নাজিমুদ্দীন সামাদ বাসায় ফেরার পথে খুন হন।

– See more at: http://istishon.com/?q=node%2F20890#sthash.pLFbIevo.dpuf

0 Shares