হযরত আয়েশা

Caution: Halal images below

 

sex1

১) ওয়াদারক্ষাকারী  

ওয়াদা ভঙ্গকারীকে দয়ার নবী পছন্দ করতেন না। তাই উনি আবু বক্করকে কথা দিয়েছিলেন যে আয়েশার সাথে উনি ৯ বছরের আগে যৌন সঙ্গম করবেন না এবং উনি উনার কথা রেখেছিলেন। তিনি আয়েশাকে ৬ বছরে বিয়ে করলেও তিন বছর অপেক্ষা করেছিলেন কখন আয়েশার ৯ বছর হবে।

Narrated ‘Aisha:

That the Prophet married her when she was six years old and he consummated his marriage when she was nine years old, and then she remained with him for nine years.
(Sahih Bukhari Volume 7, Book 62, Number 6)

২) আত্মসংযম  

আমাদের নবী এতোটাই আত্মসংযমী ছিলেন যে, উনি তাঁর যেকোনো স্ত্রীকে যেকোনো সময় (পিরিয়ডের সময়) আদর করে তাদের সাথে কোনোরকম যৌন সঙ্গম না করেই চলে যেতেন।

Narrated ‘Abdur-Rahman bin Al-Aswad:

(on the authority of his father) ‘Aisha said: “Whenever Allah’s Apostle wanted to fondle anyone of us during her periods (menses), he used to order her to put on an Izar and start fondling her.” ‘Aisha added, “None of you could control his sexual desires as the Prophet could.”  

(Bukhari, Volume 1, Book 6, Number 299:)

 

৩) পরম দয়ালু  

আল্লার নবী যৌনসম্ভোগের জন্য শুধু যে নিজের জন্যই যুদ্ধবন্দী নারীদের রাখতেন তা কিন্তু নয়। উনি তাঁর সাহাবী এবং বন্ধু বান্ধবদের সাথে যুদ্ধবন্দী নারীদের সমানভাগে ভাগ করে দিতেন।

(Ref. Waqqidi, Tabari, and Ishaq)

A fifth of the booty was, as usual, reserved for the Prophet, and the rest divided. From the fifth Mahomet MADE CERTAIN PRESENTS TO HIS FRIENDS OF FEMALE CAPTIVES AND CHILDREN.

 

অর্থাৎ, ১/৫ বুটি (যুদ্ধে থেকে প্রাপ্ত সম্পদ) যদিও তার ভাগে থাকতো কিন্তু তার অংশ থেকেও মেয়ে এবং বাচ্চাদের উনি অন্যদের (সাহাবাদের) উপহার দিতেন।

আরেক হাদিসে-

Mahomed had part of his share of enslaved women and children from Quraiza sent and sold to the Bedouin tribes of Najd, in exchange for horses and arms.

(Sirat e Rasulullah by Ishaq, page 464)

অর্থাৎ বনু ফারাজা থেকে যে মহিলা এবং বাচ্চাদেরকে বন্দী করেছিলেন উনি তা নাজদ গোত্রে বিক্রি করে ঘোড়া এবং অস্ত্র সংগ্রহ করেছিলেন।

৪)আত্মবিসর্জন  

বনু ফাজারা আক্রমণের পর যোদ্ধারা এক সুন্দরী রমণীকে বন্দী করেন এবং সাহাবীরা তার সাথে যৌন সম্পর্ক করতে চাইলে আমাদের দয়াল নবী তাঁদেরকে বাধা দেন এবং ওই রমণীকে তিনি মক্কায় আটকে থাকা যোদ্ধাদের ছাড়িয়ে আনতে মুক্তিপণ হিসেবে ব্যবহার করেন।

Muslim Book 019, Number 4345:

Narrated Ibn Muhairiz: Among captured women was a woman from Banu Fazara. She was wearing a leather coat. With her was her daughter who was one of the PRETTIEST GIRLS IN ARABIA. Abu Bakr bestowed that girl upon me as a prize. So we arrived in Medina.

৫) সমব্যথিত

আরবে আগে বৌ’দেরকে মারা হতো (কোরানে বৌদের মারার বিধান আছে ৪:৩৪) এবংএকই রাতে তাদের সাথে যৌনসঙ্গমে লিপ্ত হতো। দয়াল নবী এই ধরনের গর্হিত কাজকে নিষিদ্ধ করেন।

NarratedAbdullah bin Zam’a:

The Prophet said, “None of you should flog his wife as he flogs a slave and then have sexual intercourse with her in the last part of the day.”  

( Bukhari Volume 7, Book 62, Number 132)

অর্থাৎ যেদিন বৌদের’কে মারবে সেই রাতে বৌদের সাথে সঙ্গম করবে না!!!

৬) শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী 

সর্বকালের শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানী বলেন যৌন সঙ্গমের সময় যদি ছেলেদের আগে বীর্যপাত (ডিসচার্জ) হয় তাহলে বাচ্চা দেখতে বাবার মতো, হবে আর যদি নারীদের আগে বীর্যপাত (ডিসচার্জ) হয় তাহলে বাচ্চা দেখতে মায়ের মতো হবে!

হযরত আয়েশা এর ব্লগ   ৬৪৭ বার পঠিত