জোবায়েন সন্ধি

ভারতের নয়াদিল্লির জওহরলাল নেহেরু ইউনিভার্সিটির ছাত্র সংসদ নির্বাচনে বাম ছাত্র মোর্চার কাছে ধরাশায়ী সঙ্ঘ পরিবারের ছত্রচ্ছায়ায় থাকা ছাত্র সংগঠন অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ। আর দিল্লিতে বাম ছাত্রদের এই লড়াইয়ের অন্যতম মুখ বাংলার ঐশি ঘোষ। জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির ছাত্র সংগঠন এবিভিপি’র চরম ভরাডুবি হতে যাচ্ছে।

ছাত্র সংসদের সভাপতি, সহ-সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সহ-সম্পাদকসহ বিভিন্ন পদের নির্বাচনে জয়ের পথে বাম সংগঠনগুলোর নেতারা।  উল্লেখ্য, মোদী সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে জেএনইউর ছাত্র সংগঠনের ক্ষমতা দখলকেই পাখির চোখ করেছে এবিভিপি। বামের দুর্গ বলে পরিচিত জেএনইউ বরাবরই সঙ্ঘ পরিবারের গলার কাঁটা। নরেন্দ্র মোদী ক্ষমতায় আসার পর থেকেই এখানকার ছাত্র সংগঠন দখল করতে মরিয়া এবিভিপি। কিন্তু প্রতিবারই হেরেছে গেরুয়া শিবির।

ঐশী ঘোষের কাছে বিজিপির ছাত্র সংগঠনের নেতা এখন পর্যন্ত অর্ধকের কম ভোট পেয়ে পেছনে আছেন। বাকি সবগুলো পদেও বিজিপি পেছনে। সবগুলো পদে বিজিপি লজ্জাজনকভাবে হারছে বলেই মনে করছেন সবাই। উল্লেখ্য, গত নির্বাচনেও সবগুলো পদেই জিতেছিল বামেরা। নিশ্চিত হওয়া গেছে এবারও সেই ধারা বজায় থাকবে ভারতের অন্যতম নামকরা এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে।

বেআইনিভাবে মনোনয়ন খারিজ করা হয়েছে বলে দাবি করে দুই জেএনইউ ছাত্র অংশুমান দুবে ও অমিত দ্বিবেদী দিল্লি হাইকোর্টে মামলা করায় ১৭ তারিখের পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত ফল ঘোষণা স্থগিত করেছে আদালত।

ভিডিও ইন্টারভিউ দেখুন নিচে:

সভাপতি পদে এসএফআই-এর হয়ে লড়ছেন দুর্গাপুরের ঐশি। উচ্চমাধ্যমিকের পর দিল্লিতেই একটি কলেজে স্নাতক পড়ালেখা করেন। এরপর  আন্তর্জাতিক সম্পর্ক (IR) বিষয়ে স্নাতকোত্তর কোর্সে ভর্তি হন জেএনইউতে। ইতোমধ্যেই তাঁর অগ্নিঝরা বক্তৃতা এবং স্লোগান দেওয়ার স্টাইল প্রগশিীল মহলে ব্যাপক জনপ্রিয়তা কুড়িয়েছে। অনেকেই বলেন, কানহাইয়া কুমারের উত্তরসূরী পেয়ে গেছে জেএনইউ।

বামপন্থীরা বরাবরই ভারতের আধিপাত্যবাদের বিরুদ্ধে কথা বলেন বলে ভারতের লড়াকু জনগণের এই জয় সকলকে শক্তি যোগায়। ভারতে প্রবল হিন্দুত্ববাদের রথকে আটকে দেওয়ার জন্য কমরেড ঐশিকে অভিনন্দন।  এখন জানার কৌতুহল ঐশির এই জয়ে মোদির মানসিক অবস্থা ও প্রতিক্রিয়া কী?

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের (জেএনইউ) ছাত্র সংসদ নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় কমরেড ঐশিকে আগাম অভিনন্দন।

0 Shares

জোবায়েন সন্ধি এর ব্লগ   ১৩৩ বার পঠিত