অভিজিৎ রায় নামটা মনে পড়লেই সেই চাপচাপ লাল রক্ত চোখের সামনে ভেসে ওঠে। আর এক মেয়ে অসহায়ের মত দাঁড়িয়ে আছে তার পাশে, হাতেমুখে রক্ত নিয়ে।

এই ছবি কেউ কী জীবনে ভুলে যেতে পারে? না ভোলা সম্ভব না।

আজ  তাঁকে স্মরণ করতে এসে, আর এক বলিষ্ঠ ব্যাঙ্গালুরুর সাংবাদিক, সমাজসেবীর খুনের খবর আমাদের সবাইকে অত্যন্ত হতাশ ও আতংকিত করে তুলেছে।

মৌলবাদী আক্রমণ বারবার আসছে ব্লগার মুক্তমনা লেখকদের ওপর।

সেই একই শেষমেশ। আততায়ী ধরা পড়ে না। সরকারের নির্লিপ্ততা। অনেকসময় ধরা পড়লেও, এক জেল থেকে অন্য জেলে নেবার পথে পালিয়ে যায় আসামী।

আসলে আগে রাগ হত। এখন আর হয় না। কারণ আমরা সবাই জানি, সদিচ্ছা না থাকলে, কোনকিছুই ন্যায়পথে বিচার পাওয়া সম্ভব নয়।

ধর্ম আর পুরনো সংস্কারকে যুক্তির আলোকে দেখতে মৌলবাদীরা ভয় পায়। তাই কলমের যুক্তি যখন হার মানে, তখন সেই চাপাতি অথবা বুলেট তাদের

একমাত্র পৈশাচিক অস্ত্র হাতে উঠে আসে।

আজ অভিজিৎ রায় আজ  আমাদের মাঝে নেই। কিন্তু তাঁর কলম থামেনি, কলম চলছেই। কলমে চলবেই।

অভিজিৎ রায় আরো হাজার লক্ষ অভিজিৎ তৈরি করে গেছেন। যারা মৌলবাদীদের ভয়ের কারণ হয়ে থাকবে আজীবন।

 

 

মিতালী মুখোপাধ্যায়

বার্লিন, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৭